এবার পুরো পৃথিবী বাংলায়

আগস্ট ১, ১৯৭১- দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ এর কিছু অদেখা ছবি

21

- Advertisement -

চ্যারিটি কনসার্টের কথা আপনারা নিশ্চয়ই জানেন। কোন একটা মহৎ কাজের উদ্দেশ্যে কনাসার্টের আয়োজন করা এবং সেখান থেকে উপার্জিত টাকা দিয়ে দুস্থদের সেবা করার এই ব্যাপারটা আজ যেমন এত জনপ্রিয়, আগে তা ছিলো না। এই চ্যারিটি কনসার্টের আইডিয়াটি জনপ্রিয়তা লাভ করে ১৯৭১ সালের জর্জ হ্যারিসনের আয়োজিত সেই কনসার্টের পর হতে, যা তিনি করেছিলেন বাংলাদেশের যুদ্ধপীড়িত মানুষের কল্যাণের জন্য।

ছবিঃ জর্জ হ্যারিসন

চ্যারিটি কনসার্টের কথা আপনারা নিশ্চয়ই জানেন। কোন একটা মহৎ কাজের উদ্দেশ্যে কনাসার্টের আয়োজন করা এবং সেখান থেকে উপার্জিত টাকা দিয়ে দুস্থদের সেবা করার এই ব্যাপারটা আজ যেমন এত জনপ্রিয়, আগে তা ছিলো না। এই চ্যারিটি কনসার্টের আইডিয়াটি জনপ্রিয়তা লাভ করে ১৯৭১ সালের জর্জ হ্যারিসনের আয়োজিত সেই কনসার্টের পর হতে, যা তিনি করেছিলেন বাংলাদেশের যুদ্ধপীড়িত মানুষের কল্যাণের জন্য।

বাংলাদেশ তখন ইস্ট পাকিস্তান নামের বোঝা বয়ে বেড়াচ্ছে। একদল দামাল ছেলে নিজের প্রাণ বাজি রেখে ইস্ট পাকিস্তানকে বাংলাদেশ তৈরির লড়াইয়ে লেগে আছে। দেশের মানুষ অসহায়ভাবে পালিয়ে বেড়াচ্ছে, পাক সেনার হাতে মারা পরছে। অন্যদিকে প্রায় এক কোটি বাঙালি শরনার্থি, যারা বর্ডার পার হয়ে ভারতে গেছে প্রাণ বাঁচাতে, তারা না খেয়ে মরছে। এই বিশাল পরিমাণে শরনার্থিদের একবেলা খাওয়াতে হিমশিম খাচ্ছে ভারত সরকার। অন্য দেশ থেকে সাহায্য এলেও তা পরিমাণে অত্যন্ত নগণ্য। তখন এগিয়ে আসেন জর্জ হ্যারিসন।

তিনি জড়ো করেন তার অন্যান্য বন্ধুদের। বব ডিলান, এরিক ক্ল্যাপটন, রবি শঙ্কর, রিঙ্গো স্টার, বিলি প্রেসটন এমন আরো কয়েকজনকে। তিনি আয়োজন করেন বিশ্বের প্রথম তারকাখচিত চ্যারিটি কনসার্টের। তিনি এর নাম দেন “Concert For Bangladesh”।

ছবিঃ জ়র্জ হ্যারিসন ও বব ডিলান

জর্জ হ্যারিসনের বয়স তখন সবে আটাশ, বব ডিলানে তিরিশ। তারা বহুদিন এভাবে লাইভ কনসার্টে পারফর্ম করেননি। এমনকি কনসার্টের দিনতো সবাই ভেবেছিলো বব ডিলান স্টেজেই আসবেন না! শেষপর্যন্ত সবার ধারণা ভুল প্রমাণ করে সবার সামনে আসেন বব ডিলান এবং জর্জ হ্যারিসন। নিজেদের মনোমুগ্ধকর গানে মাতিয়ে রাখেন সবাইকে। জর্জ হ্যারিসন গান বাংলাদেশ নিয়ে লেখা তার গান।এরিক ক্ল্যাপটনের “While my guitar gently weeps” ছিলো অসাধারণ। সবাই তাদের সেরাটা উপহার দিয়েছিলেন সেদিন।

ছবিঃ এরিক ক্ল্যাপটন

নিউইয়র্কের বিখ্যাত ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে ১ আগস্ট ১৯৭১ সালে আয়োজন করা হয়েছিলো এই কনসার্টের। কনসার্টটি ছিলো দুই বেলা। সকাল এবং সন্ধ্যায়। ১০ হাজার দর্শক টিকেট কেটে দেখতে এসেছিলো এই ঐতিহাসিক চ্যারিটি কনসার্ট। এই কনসার্ট নিয়ে বানানো হয়েছে ডকুমেন্টারি। এই কনসার্টটি আজ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত চ্যারিটি কনসার্টগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি।

কনসার্ট ফর বাংলাদেশ থেকে উপার্জিত একটি বিশাল পরিমান অঙ্কের টাকা ব্যয় করা হয়েছিলো যুদ্ধপীড়িত বাঙালির কল্যাণে। যতদিন পৃথিবীর মানচিত্রের বুকে বাংলাদেশ বেঁচে থাকবে, ততদিন বাঙালি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে তাদের, যারা আয়োজন করেছিলেন কনসার্ট ফর বাংলাদেশের।দেখে নিন সেই কনসার্টের আরো কয়েকটি মূহুর্ত।

- Advertisement -

স্টেজে পারফর্ম করছেন তারকারা।

সুরের ঝংকার তুলছেন রবি শঙ্কর।

পারফর্ম করছেন রিঙ্গো স্টার।

গিটার হাতে বব ডিলান।

গাইছেন বিলি প্রেসটন।

উত্তাল জনতার একাংশ।

জর্জ হ্যারিসন, যার উদ্যোগেই হয়েছিলো কনসার্ট ফর বাংলাদেশ।

সকল ছবির সৌজন্যঃ TIME

মন্তব্য
লোডিং...
Translate »