এবার পুরো পৃথিবী বাংলায়

সুজানা আবেদীন সোনালী’র সাইকোলজিক্যাল থ্রিলারঃ অভিশঙ্কিত হারমোনিকা

অমর একুশে বইমেলা-২০১৮, ভূমিপ্রকাশের স্টলে

কাহিনীসংক্ষেপ

ক্যালিফোর্নিয়ার ছোট শহরগুলোয় হচ্ছে একাধিক খুন। খুন হচ্ছে অযোগ্য সব পুরুষ। কারণ খুনী তাদের দেহে ধারালো কিছু একটা দিয়ে লিখে দিচ্ছে, “তুমি যোগ্য নও”। তারপর বিদায় উপহার হিসেবে দিচ্ছে একটি হারমোনিকা।

রুটিনবাঁধা জীবনে অভ্যস্ত সপ্তদশী এলির কৌতুহল জাগাতে পারল খুনী। ঘটল কৌতুহলের বহিঃপ্রকাশ। ফলাফল হিসেবে তার রুটিনবাঁধা জীবনে নেমে এলো বিপর্যয়। প্রিয় গানের দল ভেঙ্গে গেলো। এবং তার পিছু নিলো, কালো হুডিতে মুখের অনেকাংশ ঢাকা কেউ একজন!

কে সে?

সিরিয়াল জেন্টসকিলার তার ঐতিহ্য বদলে ফেলেনি তো?

ভূমিকা

আমার জীবনে কোন কিছুই প্ল্যানিং করে হয়নি। এবং বহুদিন পর্যন্ত তার অন্যতম উদাহরণ হয়ে থাকবে এই উপন্যাসিকাটি। যেটা কখনওই প্রথম বই হওয়ার কথা ছিলো না! ফেসবুকভিত্তিক কোন এক গ্রুপের গল্প প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে এই লেখা শুরু হয়েছিল। শব্দসীমা এক-তিন হাজার। অথচ লেখার পর দাঁড়ালো প্রায় বিশ হাজার। জাকির ভাই বললেন, “ঘষামাজা করে দেখো বাড়ে কী না, নোভেল হয়ে গেলে জমা দিও।”

তাই হলো। জমা দিলাম। ভাবিনি নিজের পরিচিত জনরা “ফ্যান্টাসি” এর বাইরে গিয়ে কোন বাস্তবধর্মী থ্রিলার লিখতে পারব। তাও সাইকো থ্রিলার। এক পরিচিত ভাইয়া যাকে শুব্ভাই (আরিয়ান শুভ) বলে ডাকি, চেয়েছিলাম উনার পড়ার উপযোগী কিছু লিখব। কারণ ভদ্রলোক ফ্যান্টাসি পড়েন না। এবং আমার জেদ তাকে আমার লেখা পড়াবোই! ফলাফলঃ “অভিশঙ্কিত হারমোনিকা”। যদিও শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উনি রেগে আছেন আমার উপর। অতএব পড়ানোর আশা নেই। মাই ব্যাড!

লেখক-লেখিকার জন্য তাদের লেখাগুলো হয় সন্তানের মতো। অতএব এটা আমার সন্তান। প্রথম সন্তান। তার জন্য সবার শুভকামনা আশা করাই যায়। তাই না?

এবার আসি ধন্যবাদ তালিকায়। প্রথমত সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ। ধন্যবাদ সবকিছুর উর্ধ্বে গিয়ে পাশে থাকা মা এবং ওপাড়ে চলে যাওয়া নানাভাইকে। তারপর প্রিয় বোন এবং বাডি রাহ্’মা বিনতে মোহাম্মদ (ফেইরি) কে। এই তিনটা মানুষ এই আমাকে বারবার জন্ম দিয়েছে, গড়ে তুলেছে। ধন্যবাদ জাকির ভাই, শুব্ভাই, রাতুল ভাই এবং সুমন ভাইকেও (কেউ বাদ পড়লে আমি দায়ী নই)।

ধন্যবাদান্তে-
সুজানা আবেদীন সোনালী
৮ই ডিসেম্বর ২০১৭

লেখিকা পরিচিতি

সুজানা আবেদীন সোনালী। ছোটবেলার বেশ বড় একটা সময় কেটেছে সৌদিআরবে। দেশে ফিরে ২ বছর কাটিয়েছেন চট্টগ্রামে। সেখান থেকে মাধ্যমিক শেষে ফেরেন পৈত্রিক নিবাস নোয়াখালীতে। কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এ ডিপ্লোমা শেষ করেছেন এই বছর। চার ভাইবোনের মধ্যে সুজানা সবার বড়। মা আদর করে ডাকেন ‘প্রিন্সেস’। একা থাকতেই বেশি পছন্দ করেন। বই পড়তে ভালোবাসেন। ফ্যান্টাসি, থ্রিলার, হরর, রোমান্টিক- সব ধরণের বই পড়তেই পছন্দ করেন তিনি। তবে প্রিয় তালিকায় রয়েছে বিভিন্ন দেশীয় পুরাণ কথা।

পাশাপাশি ভালোবাসেন লিখতে। তার সৃষ্ট ‘শুভ্র-শৈল্পী’ চরিত্র দুটি ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বেশ কিছু সংকলনে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা গল্প। লেখালেখির প্রতি ভালোবাসা থেকেই এবার তার প্রথম একক…. ‘অভিশঙ্কিত হারমোনিকা’

বইয়ের নামঃ অভিশঙ্কিত হারমোনিকা
প্রকাশনীঃ ভূমিপ্রকাশ
প্রচ্ছদঃ আবুল ফাতাহ মুন্না
পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১২০
মলাট মূল্যঃ ১৬০
ধরণঃ সাইকোলোজিক্যাল থ্রিলার

বইমেলা ২০১৮ তে প্রকাশিত হচ্ছে বাংলাহাব এর লেখকদের বই!
বইমেলায় মাদিহা মৌ এর অনুবাদ থ্রিলার “দ্য ডটার অফ টাইম”

মন্তব্য
লোডিং...