এবার পুরো পৃথিবী বাংলায়

স্টার্টআপের পতন কেনো হয়?

"প্রতিটি মানুষই জন্মগতভাবে একজন উদ্যোক্তা" - ড. মুহাম্মদ ইউনূস

644

বাংলাদেশে সফল স্টার্টআপের সংখ্যা হাতে গোনা কয়েকটা। আর বাংলাদেশের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত, যেখানে প্রত্যেক ঘন্টায় একটি নতুন আইডিয়া সাবমিট হচ্ছে স্টার্ট আপের দুনিয়ায়, সেখানেও স্টার্ট আপের পতনের সংখ্যা অনেক বেশি!

কিন্তু কেনো? স্টার্টআপ গুলোর পতন কেনো হচ্ছে? সেটা নিয়েই কথা বলি চলুন! একটি স্টার্টআপ কোম্পানির পতন হবার মূল কারণগুলো নিচে তুলে ধরার চেষ্টা করছি!

আমরা যখন একটি স্টার্ট আপ এর আইডিয়া বাছাই করি তখন থেকে শুরু করে সেই আইডিয়া ইমপ্লিমেন্টেশন করা পর্যন্ত কয়েকটি বিশাল ধাপ আমাদের পার করে আসতে হয়। এক্ষেত্রে আমরা যে ভুলটা করি সেটা হচ্ছে, আমরা সঠিক আইডিয়াই বাছাই করতে পারি নি, আমরা সঠিকভাব ইমপ্লিমেন্টেশনের দিকে এগুতে পারি নি। আমরা আমদের রিস্ক ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কেও অজ্ঞ। অর্থাৎ, সঠিক জায়গায় প্রেসার দিতে পারি নি আমরা। আর এই কারনে প্রায় ৭% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

আমরা প্রায়ই কোনো একটি আইডিয়ার পেছনে এতটা সময় ব্যয় করি কিংবা কোনো একটি আইডিয়ার ইমপ্লিমেন্টেশনে এতটা সময় ব্যয় করি যে, আমাদের ওয়ার্ক লাইফের সাথে আমাদের জীবনের বাকি পার্টগুলো ব্যালেন্স থাকে না! যার ফলে আমরা তাড়াতাড়ি পুড়ে যাই! আর এই কারনে প্রায় ৮% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

স্টার্ট আপ তৈরী করার পাশাপাশি আমাদের কটি নেটওয়ার্ক ও তৈরী করতে হয়। এবং একই সাথে নেটওয়ার্কটি ব্যবহার করার ক্ষমতাও থাকতে হয় বা শিখতে হয়। কিন্তু আমরা তা করি না। আর নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার অক্ষমতায় প্রায় ৮% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

আইডিয়া তৈরী করলাম কিংবা আইডিয়া ধার নিলাম এবং কাজ শুরু করতে না করতেই আইনি ঝামেলা। এই আইনি ঝামেলার কারনে প্রায় ৮% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

আইডিয়া আছে, সব সমস্যার সমাধান আছে কিন্তু ইনভেস্টর নেই কিংবা অর্থনৈতিক সমস্যা। আর এই সমস্যার কারনে প্রায় প্রায় ৮% স্টার্ট আপ ফেইল হয়ে যায়।

একটি আইডিয়া হয়তো শুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট এলাকার জন্যে হতে পারে কিংবা শুধুমাত্র একটি দেশের জন্যে হতে পারে কিংবা শুধুমাত্র একটি মহাদেশের জন্যে হতে পারে কিংবা সারা পৃথিবীর জন্যেই হতে পারে। অনেক ক্ষেত্রেই এই বিষয়টা সম্পর্কে রিসার্চ না করে, কোথায় কোন প্রজেক্ট শুরু করা উচিত হবে সেটা না ভেবেই কাজ করার জন্যে প্রায় ৯% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

শুধুমাত্র টাকা চাই, শুধুমাত্র ব্যবসা করতে চাই কিংবা যা দেখেছে, যেখানে লাভ দেখেছি সেখানে দৌড় দিয়েছি। এইসব কারনে প্যাশন থাকে না। আর প্যাশন না থাকার কারনে প্রায় ৯% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

টিম তৈরী করা হয়েছে কিন্তু সেই টিমের মধ্যে যদি সম্প্রীতি না থাকে, কাজ করার সময় একজনের আরেকজনের প্রতি ভালোবাসা না থাকে এবং টিমের ভেতর যদি কোন্দল লেগেই থাকে তাহলে স্টার্ট আপ সফল হতে পারে না। এই কারনে প্রায় ১৩% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

আমরা প্রায়ই দেখি, একটা বিষয় নিয়ে কাজ করতে করতে আমরা অন্য বিষয়ে চলে যাই। আর ধীরে ধীরে মূল বিষয় থেকে অনেক দূরে চলে আসি আমরা। প্রায় ১৩% স্টার্ট আপ ফেইল হবার একটা বিশেষ কারণ হচ্ছে ফোকাস অন্যদিকে চলে যাওয়া!

কাস্টোমার, ভিজিটর, ভিউয়ার এবং ইউজার দের প্রতি দৃষ্টি না রেখেই, তারা কি চাচ্ছে  সেদিকে খেয়াল না দিয়েই কোনো স্টার্ট আপ চালিয়ে গেলে সেটা তো ফেল হবে। এই কারনে প্রায় ১৬% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

মার্কেটিং যেকোনো কিছুর জন্যেই খুবই দরকারি একটি পার্ট। সেটা ডিজিটাল মার্কেটিং হোক কিংবা অফলাইন মার্কেটিং হোক। মার্কেটিং করাটা খুবই জরুরী আর সঠিক মার্কেটিং করাটা আবশ্যম্ভাবি। সঠিক মার্কেটিং না করার কারনে এবং সঠিক স্ট্র্যাটেজি মেনে মার্কেটিং না করার কারনে প্রায় ১৬% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

ব্যবসা করবো, ব্যবসা করছি। কিন্তু সঠিক বিজনেস মডেল নেই। যার ফলে হয়তো এক বছর কোনরকমে চলে গেলাম কিন্তু তারপর যখন কাস্টোমার বাড়বে তখন মনে হবে যে একটি সুন্দর বিজনেস মডেল না থাকলে কি কি ক্ষতি হয়। আর এই কারনে প্রায় ১৭% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

কাস্টমারের যেসকল প্রোডাক্ট দরকার নেই, ইউজারের যেসকল সার্ভিস  দরকার নেই সেগুলো দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছেন আপনার ব্যবসা। তাহলে ব্যবসা চলবে কীভাবে? ইউজার ফ্রেন্ডলি পণ্য  না থাকার কারনে প্রায় ১৭% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

একটি পণ্যের দাম নির্বাচন করার সময় কম্পিটিটর, কাস্টোমার ক্যাটাগরি এবং আরো বিশেষ কিছু দিক বিবেচনা করা তারপর দাম নির্বাচন করতে হয়। একটি পণ্যের সঠিক এবং একিউরেট দাম নির্বাচন করতে অসফল হওয়ায় প্রায় ১৮% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

যেকোনো ব্যবসা কিংবা উদ্যোগের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হচ্ছে কম্পিটিশনে টিকে থাকা। আপনাকে অবশ্যই সবসময় কম্পিটিশনে টিকে থাকতে হবে আর সেজন্যে আপনার কম্পিটিটর থেকে ভালো সার্ভিস, কোয়ালিটি সম্পন্ন সার্ভিস এবং দাম, তাছাড়া আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিকে খেয়াল রেখে তারপরে সামনে এগুতে হবে। আর এটা করতে না পারা কারনে অর্থাৎ আউটকম্পিটেড হয়ে যাবার কারনে প্রায় ১৯% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

টিমে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু তারপরেও স্টার্ট আপ সঠিকভাবে বেড়ে উঠছে না। কেন? কারণ, আপনার টিমের মেম্বাররা সঠিক নয়। অর্থাৎ আপনার স্টার্ট আপ টিম সঠিক নয়। আর এই কারনে প্রায় ২৩% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

ইনভেস্ট নিয়েছেন। কাজ শুরু করে দিয়েছেন। কিন্তু কাজ কমপ্লিট করার পূর্বেই কিংবা প্রোডাক্ট কিছুদিন বাজারে চলতে না চলতেই আপনার ক্যাশ টাকা ফুরিয়ে গেলো। এটা বেশ বড় একটা প্রব্লেম। আর এই কারনে প্রায় ২৯% স্টার্ট আপ ফেইল হয়ে যায়।

সবচেয়ে ভয়ানক আর সবচেয়ে বড় যে ভুলটা আমরা করে থাকি স্টার্ট আপ ওপেন করতে গিয়ে সেটা হচ্ছে, আমরা এমন একটি স্টার্ট আপ আইডিয়া নিয়ে আসি যেটার হয়তো মার্কেটে এখন দরকারই নেই, কিংবা কম্পিটিশন অনেক অনেক বেশি কিংবা ভবিষ্যতের প্রোডাক্ট এখনি চালানোর চেষ্টা করছি। মার্কেটে দরকার না থাকার কারনে, আমরা আমাদের উদ্যোগটা ঠিকমতো চালাতেই পারি না। অর্থাৎ, মানুষ খায় না! আর এই কারনে প্রায় ৪৯% স্টার্ট আপ ফেইল হয়।

একটি স্টার্ট আপ ফেইল হবার জন্যে উপরের যেকোনো একটি বা একাধিক কারন যথেষ্ট। উপরের সমস্যাগুলো সমাধান করে যদি ঠিকমতো কাজ চালিয়ে যেতে পারেন তাহলে আশা করা যায় বেশ ভালোভাবেই একটি স্টার্ট আপ রান করানো সম্ভবপর হবে!

মন্তব্য
লোডিং...