এবার পুরো পৃথিবী বাংলায়

নিজেই কাপড়ের শপিং ব্যাগ দিয়ে তৈরি করুন মাস্ক

Homemade mask from shopping bag made of clothes

শুরুতেই বলে নিচ্ছি, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কোন ধরণের মাস্কই সহায়তা করতে পারবে না। যে বিশেষ ধরণের মাস্ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে WHO থেকে, সেগুলো মোটেই সহজলভ্য নয়। মাস্কের চেয়ে বেশি জরুরি আ্যলকোহল হ্যান্ডরাব কিংবা স্যানিটাইজার। তবে এই মাস্ক যেসব কাজে লাগবে তা হচ্ছে ইনফ্লুয়েঞ্জা জাতীয় ভাইরাস প্রতিরোধে বা রাস্তাঘাটের ধুলাবালি থেকে বাঁচতে। আমাদের মধ্যে অনেকেই দূরপাল্লার কিংবা রোজ অফিস/কলেজ/স্কুলে যেতে মাস্ক পরে থাকি। কর্মক্ষেত্রে সারাদিন এয়ারকন্ডিশনের প্রভাব থেকে বাঁচতেও মাস্ক পরি। তাই করোনা থেকে বাঁচতে না হলেও প্রতিদিনের ব্যবহারের জন্য এই মাস্কগুলো জরুরি।

আমি আমার বাড়িতে পড়ে থাকা টিস্যু কাপড়ের শপিং ব্যাগ দিয়ে মাস্কগুলো বানিয়েছি। এই কাপড়ের সঙ্গে সার্জিক্যাল মাস্কের ম্যাটারিয়ালে খানিকটা মিল আছে। এই শপিং ব্যাগগুলো সবার বাড়িতে প্রচুর আছে। আর এই ব্যাগগুলো সেমি ওয়াটারপ্রুফ। কচলাকচলি করে পানি না ঢুকালে কিংবা প্রবল বর্ষণ না হলে ভিজবে না। একটা মাঝারি সাইজের ব্যাগ দিয়ে দুই/তিনটা মাস্ক বানাতে পারবেন। এর সেমি ওয়াটারপ্রুফ ম্যাটারিয়াল হাঁচি কাশির সাথে নির্গত ড্রপলেট অর্থাৎ জলকণা আকারের ভাইরাসকে আপনার নাকমুখে প্রবেশ করা থেকে আটকাবে, ধুলাবালি থেকে বাঁচাবে। আপনি যদি নিজেও সর্দিকাশিতে আক্রান্ত হয়ে থাকেন, আপনার থেকে যেন অন্য কোথাও না ছড়ায় সেই কাজেও সহায়তা করবে।
ধাপে ধাপে বলে দিচ্ছি কিভাবে মাস্ক তৈরি করবেন।

ধাপ ১

শপিং ব্যাগ স্যাভলন বা গরম পানিতে ধুয়ে শুকিয়ে নিন। তারপর শপিং ব্যাগটি মাস্কের মাপমতো কেটে নিন।

ধাপ ২

খোলা অংশটি সেলাই করে নিন। সেলাই না করলেও চলে, আপনার ইচ্ছের উপর নির্ভর করে।

ধাপ ৩
দুপাশে দুটি করে চারটি ছিদ্র করুন।

ধাপ ৪

ছিদ্র দিয়ে সুতা ঢুকিয়ে গিঁট দিয়ে নিন। চাইলে ইলাস্টিক ব্যান্ড ও ব্যবহার করতে পারেন বা শপিং ব্যাগেরই অংশ থেকে ফিতার মতো কেটে নিয়ে গিঁট দিতে পারেন।

ব্যস, তৈরি হয়ে গেল আপনার মাস্ক!

ছবি কৃতজ্ঞতা- লেখিকা

এই মাস্ক বহুবার ইউজ করতে পারবেন। শুধু স্যাভলন পানিতে ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে। অনেকেই  নিয়মিতভাবেই  মাস্ক ব্যবহার করেন, তাদেরও প্রচুর টাকা দিয়ে কিনতে হচ্ছে মাস্ক। কোভিড-১৯ প্রতিরোধে এটি কোন সহায়তা না করলেও কমন কোল্ড, ধুলাবালি থেকে বাঁচতে সহায়তা করবে। বাকি বেঁচে যাওয়া ১৫০/২০০ টাকা দিয়ে বরং স্যানিটাইজার বা আ্যলকোহল হ্যান্ড রাব কিনুন। সেটা সবচেয়ে বেশি জরুরি এখন। আর হ্যা, এই মাস্ক দেখতে বেশি ভাল না। কিন্তু ফ্যাশন আগে না স্বাস্থ্য, সেই সিদ্ধান্ত আপনার।

মন্তব্য
লোডিং...